শেখ হাসিনা আরেকটি দাসখত দিলেন: বিএনপি | The Daily Star Bangla
০৪:৫২ অপরাহ্ন, অক্টোবর ০৬, ২০১৯ / সর্বশেষ সংশোধিত: ০৪:৫৫ অপরাহ্ন, অক্টোবর ০৬, ২০১৯

শেখ হাসিনা আরেকটি দাসখত দিলেন: বিএনপি

স্টার অনলাইন রিপোর্ট

বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে গতকাল শনিবার যে সাতটি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে তাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারতের কাছে ‘আরেকটি দাসখত দিলেন’ বলে মন্তব্য করেছে বিএনপি।

দলটির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী রোববার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, “চুক্তিগুলোর খবর জেনে বাংলাদেশের জনগণের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ছে। মনে হয়েছে এগুলো চুক্তি নয় যেন শেখ হাসিনা আরেকটি দাসখত দিলেন। এর মাধ্যমে মূলত: স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্রের সমুদ্র বন্দর, ফেনী নদীর পানি এবং জ্বালানী সংকটময় বাংলাদেশের গ্যাস হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।”

“আমরা ফেনী নদীর পানি প্রত্যাহারসহ সকল দেশবিরোধী চুক্তির তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং অবিলম্বে ওইসব চুক্তি বাতিলের দাবি জানাচ্ছি,”উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, এসব চুক্তি করে প্রধানমন্ত্রী ক্ষমতার মসনদে থাকার গ্যারান্টি আর ঠাকুর শান্তি পুরস্কার পেলেও বিনিময়ে বাংলাদেশের জনগণ কিছুই পায়নি।

রিজভী বলেন, শেখ হাসিনা ভারত সফরে গেলেই দেশের জনগণ আতঙ্কে থাকে। …আমরা আগেই বলেছিলাম প্রধানমন্ত্রী যতবার ভারত যান কেবল উজাড় করে দিয়ে আসেন। আনতে পারেন না কিছুই।

নিজ দেশের জনগণকে প্রধানমন্ত্রী নিজ দেশের নদীর পানি থেকেও বঞ্চিত করলেন উল্লেখ করে রিজভী প্রশ্ন রাখেন, “এভাবে কী স্বামী-স্ত্রী সম্পর্ক হয়, না ভাই বোনের সম্পর্ক হয়?”

প্রধানমন্ত্রীর সফরের সাফল্য-ব্যর্থতা নিয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে রিজভী বলেন, সব দেশের প্রধানমন্ত্রীই বিদেশ সফরে কিছু না কিছু আনতে যায়। আর আমাদের প্রধানমন্ত্রী ভারত সফরে যান সবকিছু উজাড় করে দিয়ে আসতে।

বিএনপির এই জ্যেষ্ঠ নেতা সংবাদ সম্মেলনে বলেন, বন্ধুত্ব হয় সমতার ভিত্তিতে লেনদেনের ওপর। কিছুই না পেয়ে শুধু একতরফা দিয়ে যাওয়াকে কি বন্ধুত্ব বলে? এটাতো একমুখী একতরফা প্রেম। নিজেদের স্বার্থ বিসর্জন দিয়ে চুক্তি করার চেয়ে কোনো চুক্তি না থাকাও যে ভালো, সেটাও আজ আমরা পুরোপুরি ভুলে বসে আছি।

দেশের বাজারে ভারতের পেঁয়াজ রপ্তানির নিষেধাজ্ঞা সম্পর্কে মন্তব্য করতে গিয়ে রিজভী বলেন, বাংলাদেশে পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দিয়ে দেশের পেঁয়াজের বাজার অস্থির করে তুলেছে ভারত। মানুষের নাভিশ্বাস দশা হয়েছে। অথচ, এমন একটি সিরিয়াস বিষয় নিয়ে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী দিল্লিতে গিয়ে যেভাবে হাস্যরস করলেন, তা দেশের জনগণকে বিব্রত করেছে।

গ্যাস রপ্তানির ব্যাপারে দলের পক্ষ থেকে রিজভী বলেন, গত বছরের ৭ মার্চ রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের জনসভায় শেখ হাসিনা বলেছিলেন, বিদেশে গ্যাস রফতানি করতে রাজি হইনি বলে ২০০১ সালের নির্বাচনে ক্ষমতায় আসতে পারিনি। খালেদা জিয়া গ্যাস রফতানির মুচলেকা দিয়ে ক্ষমতায় এসেছিলেন।”-আজ প্রশ্ন কেন গ্যাস দিলেন? ক্ষমতায় থাকার জন্যই কী এ গ্যাস দেওয়া? এবার অস্বীকার করবেন কোন মুখে?

 

আরও পড়ুন:

ফেনী নদীর পানি যাবে ত্রিপুরায়

বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ককে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেয় ভারত: জয়শঙ্কর

বাংলাদেশ-ভারতের ৭ সমঝোতা স্মারক সই, ৩ প্রকল্প উদ্বোধন

Stay updated on the go with The Daily Star Android & iOS News App. Click here to download it for your device.

Grameenphone and Robi:
Type START <space> BR and send SMS it to 2222

Banglalink:
Type START <space> BR and send SMS it to 2225

পাঠকের মন্তব্য

Top