প্রখ্যাত ইতিহাসবিদ এবিএম হোসেন আর নেই | The Daily Star Bangla
১২:৩৬ অপরাহ্ন, জুলাই ১১, ২০২০ / সর্বশেষ সংশোধিত: ১২:৫৪ অপরাহ্ন, জুলাই ১১, ২০২০

প্রখ্যাত ইতিহাসবিদ এবিএম হোসেন আর নেই

নিজস্ব সংবাদদাতা, রাজশাহী

আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন ইতিহাসবিদ ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম ইমেরিটাস অধ্যাপক এবিএম হোসেন মারা গেছেন। তার বয়স হয়েছিল ৮৬ বছর। আজ শনিবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা ও মানবিক অনুষদের মানবিক অনুষদের ডিন অধ্যাপক ফজলুল হক দ্য ডেইলি স্টারকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘আজ ভোররাতে রাজধানী ঢাকার বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় অধ্যাপক হোসেন মারা গেছেন। স্যার ইতিহাসের সর্বক্ষেত্রেই বিচরণ করেছেন। ইসলামিক প্রত্নতত্ত্ব বিষয়েও তার বই আছে। তবে তিনি মধ্যপ্রাচ্যের ইতিহাসে বিশেষজ্ঞ হিসেবে খ্যাতি পেয়েছেন। আরব স্থাপত্য, মুসলিম শিল্পকলার ইতিহাস ও মধ্যপ্রাচ্যের ইতিহাসসহ তার লেখা অন্তত ১১টি গ্রন্থ আছে।’

আজ বাদ জোহর নামাজে জানাজা শেষে শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদ চত্বরে একই সময় গায়েবানা জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।

১৯৭৭ সালে তাকে নরওয়েজিয়ান নোবেল কমিটির সদস্য নির্বাচিত করা হয়। তিনি বাংলাদেশ এশিয়াটিক সোসাইটি ও বাংলা একাডেমির সম্মানিত আজীবন ফেলো। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় আইন, ১৯৭৩ প্রণয়ন কমিটিতেও তিনি ছিলেন। ১৯৩৪ সালের ১ সেপ্টেম্বর কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলায় তার জন্ম হয়। তিনি দেবিদ্বার হাইস্কুল, ভিক্টোরিয়া কলেজ এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ালেখা করেন। এরপর শিক্ষাবৃত্তি নিয়ে লন্ডন ইউনিভার্সিটিতে চলে যান।

১৯৬০ সালে তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক হিসেবে যোগ দেন। অবসর নেওয়ার পরে ২০০১ সালে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন তাকে প্রথম ইমেরিটাস অধ্যাপক হিসেবে মনোনয়ন দেয়। গতবছর পারিবারিক কারণে তিনি ঢাকায় তার পরিবারের কাছে যান। এর আগে পর্যন্ত তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ে বসবাস করতেন। পাঁচ মাস আগে ঢাকার বাসায় পড়ে গিয়ে তিনি কোমরে আঘাত পান। এক সপ্তাহে আগে আবারো পড়ে গিয়ে ব্যথা পেলে তাকে বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) নেওয়া হয়।

Stay updated on the go with The Daily Star Android & iOS News App. Click here to download it for your device.

Grameenphone and Robi:
Type START <space> BR and send SMS it to 2222

Banglalink:
Type START <space> BR and send SMS it to 2225

পাঠকের মন্তব্য

Top