নীরবে পেরিয়ে গেল খান আতার প্রয়াণ দিবস | The Daily Star Bangla
১০:৫১ অপরাহ্ন, ডিসেম্বর ০১, ২০২০ / সর্বশেষ সংশোধিত: ১০:৫৬ অপরাহ্ন, ডিসেম্বর ০১, ২০২০

নীরবে পেরিয়ে গেল খান আতার প্রয়াণ দিবস

বাংলা চলচ্চিত্রে যাদের অবদান চিরদিন অম্লান হয়ে থাকবে, তাদের একজন খান আতাউর রহমান। ‘খান আতা’ নামেই বেশি পরিচিত ছিলেন চলচ্চিত্রের উজ্জ্বল এই নক্ষত্র।

১৯৯৭ সালের ১ ডিসেম্বর না ফেরার দেশে পাড়ি জমান বরেণ্য এই চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্ব। ২৩ বছর পার হয়ে গেছে তার প্রয়াণের। কিন্তু নীরবেই পেরিয়ে গেল তার প্রয়াণ দিন। কোথাও ছিল না কোনো আয়োজন।

একাধারে তিনি ছিলেন চলচ্চিত্র পরিচালক, অভিনেতা, গীতিকার, সুরকার, গায়ক, কাহিনীকার ও প্রযোজক। চলচ্চিত্রের প্রায় সব শাখাতেই বিচরণ করেছেন তিনি।

চলচ্চিত্র পরিচালনা

তার পরিচালিত প্রথম সিনেমা ‘অনেক দিনের চেনা’ ১৯৬৩ সালে মুক্তি পায়। এরপর ‘নবাব সিরাজউদ্দৌলা’, ‘সাত ভাই চম্পা’, ‘অরুণ বরুণ কিরণমালা’, ‘জোয়ার ভাটা’, ‘আবার তোরা মানুষ হ’ নামের ছবিগুলো মুক্তি পায়। ১৯৭৫ সালে প্রমোদ কর ছদ্মনামে পরিচালনা করেন ‘সুজন সখী’ নামের ছবিটি। এই ছবির জন্য তিনি প্রথম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে শ্রেষ্ঠ চিত্রনাট্যকার হিসেবে পুরস্কৃত হয়েছিলেন। ৮০’র দশকে তিনি ‘হিসাব-নিকাশ’ ও ‘পরশপাথর’ নামে দুটি ছবি নির্মাণ করেন। তার পরিচালিত শেষ ছবির নাম ‘এখনো অনেক রাত’।

অভিনয় জীবন

১৯৫৯ সালে পাকিস্তানি পরিচালক এ জে কারদার পরিচালিত উর্দু চলচ্চিত্র ‘জাগো হুয়া সাভেরা’ ছবির মূল ভূমিকায় অভিনয় করেন খান আতাউর রহমান। ছবিতে তার বিপরীতে ছিলেন ভারতীয় অভিনেত্রী তৃপ্তি মিত্র।

এহতেশাম পরিচালিত বাংলা ভাষার চলচ্চিত্র ‘এ দেশ তোমার আমার’ ছবিতে প্রথম অভিনয় করেন তিনি। এ ছাড়া, ‘কখনো আসেনি’, ‘যে নদী মরুপথে’, ‘সোনার কাজল’, ‘জীবন থেকে নেয়া’, ‘সুজন সখী’র মতো সফল চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন।

সংগীত জীবন

সংগীত পরিচালক হিসেবে প্রথম কাজ করেন ‘এ দেশ তোমার আমার’ ছবিতে। পরে ‘সূর্যস্নান’ ছবির ‘পথে পথে দিলাম ছড়াইয়া রে’ গানটি করেন, যে গানে কণ্ঠ দেন কলিম শরাফী। ১৯৬৩ সালে জহির রায়হান পরিচালিত ‘কাঁচের দেয়াল’ সিনেমায় ‘শ্যামল বরণ মেয়েটি’ গানটি জনপ্রিয়তা পায়। জহির রায়হান পরিচালিত ‘জীবন থেকে নেয়া’ ছবির ‘এ খাঁচা ভাঙব আমি কেমন করে’ গানের কথা লেখেন এবং নিজেই কণ্ঠ দেন। সাবিনা ইয়াসমিনের কণ্ঠে ‘এ কি সোনার আলোয়’, শাহনাজ রহমতুল্লাহের কণ্ঠে ‘এক নদী রক্ত পেরিয়ে’ গানগুলি খান আতাউর রহমানের সৃষ্টি। ২২তম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে শ্রেষ্ঠ সংগীত পরিচালক ও শ্রেষ্ঠ গীতিকারের পুরস্কার অর্জন করেন তিনি।

খান আতাউর রহমান ১৯২৮ সালের ১১ ডিসেম্বর মানিকগঞ্জ জেলার সিঙ্গাইরে জন্মগ্রহণ করেছিলেন।

Stay updated on the go with The Daily Star Android & iOS News App. Click here to download it for your device.

Grameenphone and Robi:
Type START <space> BR and send SMS it to 2222

Banglalink:
Type START <space> BR and send SMS it to 2225

পাঠকের মন্তব্য

Top