খাবারের ছবি ছড়িয়ে হেয় করার চেষ্টা হয়েছে: মান্না | The Daily Star Bangla
০৪:২৬ অপরাহ্ন, নভেম্বর ০৩, ২০১৮ / সর্বশেষ সংশোধিত: ০৪:৪২ অপরাহ্ন, নভেম্বর ০৩, ২০১৮

খাবারের ছবি ছড়িয়ে হেয় করার চেষ্টা হয়েছে: মান্না

স্টার অনলাইন রিপোর্ট

মহাজোটের শরিকদের ডেকে ও নৈশভোজের খাবারের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়ে জাতীয় ঐক্যের সঙ্গে সংলাপকে ‘গুরুত্বহীন’ করে ফেলার চেষ্টা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না।

তিনি বলেন, আমরা যেহেতু সংলাপ চেয়েছি, সংলাপ করতে হয়েছে আপনাকে। অতএব এই সংলাপকে যতভাবে হেয় করা যায়, যতভাবে ছোট করা যায়, যতভাবে ফালতু বানিয়ে দেওয়া যায় তার চেষ্টা হয়েছে। মহাজোটের শরিক ও বিরোধী দলকে সংলাপে ডেকে সংলাপকে গুরুত্বহীন করার চেষ্টা হয়েছে বলেও মনে করছেন তিনি।

আজ শনিবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে ‘মাটির ডাক’ নামক সামাজিক- সাংস্কৃতিক সংগঠনের উদ্যোগে ‘নির্বাচন ভাবনা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

গণভবনের রুদ্ধদ্বার কক্ষে সংলাপের ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য সরকারকে অভিযুক্ত করে মান্না বলেন, ‘এই সরকারটা কত খারাপ। কী অদ্ভুত বিষয় দেখেন। আমরা গণভবনে সংলাপ করছি। ওটার মধ্যে কোনো সাংবাদিক নাই। ফেসবুকে ছবি গেল কি করে? ওদের মতলবই খারাপ। এটা একটা মতলবি সরকার।’

‘আমাদের দাওয়াত করা হয়েছিলো নৈশভোজে। আমরা বলেছিলাম, ভোজসভার জন্য তো আমরা যাচ্ছি না, আমরা যাচ্ছি সংলাপ করতে।  একটা গ্রহণযোগ্য নির্বাচন দরকার, না হলে দেশ ধ্বংস হয়ে যাবে। এটা কোনো উৎসব নয়। অতএব নৈশভোজ নয়। উনারা মেনে নিয়েছেন। জল পানও করবো না-এরকম কথা আমরা বলিনি। পানি খাওয়াবে, চা খাওয়াবে, চায়ের সাথে বিস্কুট খাওয়াবে, স্ন্যাক্স দেবে- কে মানা করেছে? কিন্তু তারা স্ন্যাক্সের সাথে স্যুপের ছবি দিয়ে ছড়াবে- কী বোঝাতে চাইছে? এই নেতারা জীবনে খায়নি, খেতে গিয়েছিলো সেখানে? এই সরকার একটা ছোটলোকের সরকার। নাহলে এগুলো করতে পারে না। খাওয়ার ছবি দিয়ে বাইরে জনগণকে কী বোঝাতে চায়, কী তথ্য দিতে চায়?’

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সাথে আবারো সংলাপ বসার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

আন্দোলন সম্পর্কে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের এই নেতা বলেন, ‘আমরা ঘরে ঢোকার লোক না। আমরা আন্দোলন করবই। এমন কায়দায় আন্দোলন করব, যখন আপনার গুলি ফুটবে না, যারা গুলি চালায় সেই লোকগুলো গুলি করবে না। এমন পরিস্থিতি তৈরি হবে যখন আপনার হাতে কিছুই থাকবে না।’

‘আপনার পতন অনিবার্য। আপনি ক্ষমতায় থাকতে পারবেন না। আপনি চেষ্টা করবেন কিন্তু পারবেন না।’

জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ৬ নভেম্বর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে এবং ৯ নভেম্বর রাজশাহীতে জনসভা করবে বলেও এসময় তিনি জানান।

মান্না বলেন, ‘সারাদেশে আমরা জনসভা করে জনগণের সাথে কথা বলছি। এই সরকার জবর দখলকারী। তাকে সরাতে হবে। আন্দোলনের যে কর্মসূচি দিচ্ছি সেই পথে সরকার ক্ষমতা থেকে সরবে।’

সংগঠনের সভানেত্রী তাসনিম রানার উদ্যোগে আলোচনা সভায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই রায় চৌধুরী, শওকত মাহমুদ, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য ফজলুর রহমান, সহ প্রচার সম্পাদক শামীমুর রহমান শামীম, নির্বাহী কমিটির সদস্য ইসমাইল হোসেন বেঙ্গল প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

Stay updated on the go with The Daily Star Android & iOS News App. Click here to download it for your device.

Grameenphone and Robi:
Type START <space> BR and send SMS it to 2222

Banglalink:
Type START <space> BR and send SMS it to 2225

পাঠকের মন্তব্য

Top