কুষ্টিয়ার বাজারে রাসায়নিক ও আগুনের আঁচ দিয়ে পাকানো লিচু | The Daily Star Bangla
০২:৪৩ অপরাহ্ন, মে ০৬, ২০২১ / সর্বশেষ সংশোধিত: ০২:৫২ অপরাহ্ন, মে ০৬, ২০২১

কুষ্টিয়ার বাজারে রাসায়নিক ও আগুনের আঁচ দিয়ে পাকানো লিচু

নিজস্ব সংবাদদাতা, কুষ্টিয়া

সাধারণত জ্যৈষ্ঠ মাসের মাঝামাঝিতে লিচু পাকলেও মৌসুমের আগেই কুষ্টিয়ায় বিক্রি হচ্ছে ‘পাকা’ লিচু। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন এসব লিচু আগুনের আঁচ অথবা কেমিক্যাল দিয়ে লাল করা হয়েছে।

কুষ্টিয়া শহরের মজমপুর, পৌর বাজার, সিঙ্গার মোড়, চৌড়হাস, এনএস রোডের ফুটপাতে, বড় বাজার ও বিভিন্ন ফলের দোকানগুলোতে বিক্রি হচ্ছে এসব লিচু ।

মৌসুমের আগেই কীভাবে এগুলো পাকালো জানতে চাইলে এক বিক্রেতা জানান, তিনি সরাসরি গাছ থেকে এসব লিচু আনেননি। তিনি মৌসুমী ফল বিক্রেতা। পরিচিত মহাজন তাকে ফোন দিয়ে জানানোর পর তিনি মেহেরপুরের গাংনী থেকে এগুলো নিয়ে এসেছেন।

এই বিক্রেতা জানান সেখানেও এই লিচুর বেচাকেনা চলছে।  

এসব অপরিপক্ক লিচু কিনে ঠকছেন ক্রেতারা। একাধিক ক্রেতা এ নিয়ে ক্ষোভও জানিয়েছেন।

কৃত্রিম উপায়ে পাকানো লিচুর দামও হাঁকা হচ্ছে ইচ্ছেমতো। ১০০ লিচু কিনতে দাম পড়ছে ২৮০ টাকা। একজন বিক্রেতা দামের বিষয়ে জানান, মৌসুমের শুরু তাই সবাই একটু চড়া দামেই বিক্রি করছে।

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা জানান, রাসায়নিক দিয়ে এসব কাঁচা লিচু পাকানো হয়েছে অথবা আগুনের আঁচ দিয়ে রঙিন করা হচ্ছে। এসব খেলে মানুষের শরীরে স্থায়ীভাবে নানা সমস্যা তৈরি হতে পারে।

স্বাস্থ্য বিশেসজ্ঞ ও কুষ্টিয়া নাগরিক কমিটির সভাপতি প্রফেসর ডা. এস এম মুস্তানজিদ বলেন, ‘মানুষকেই প্রথম সচেতন হতে হবে। এসব গ্রহণ করে মানুষ নিজেরাই পরিপাকতন্ত্রে অনেক অসুখ-বিসুখ তৈরি করে নিচ্ছে।’

তিনি প্রশাসনকেও তৎপর হতে অনুরোধ জানান। 

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক শ্যামল কুমার বিশ্বাস বলেন, ‘প্রাকৃতিকভাবে লিচু পাকতে আরও দুই সপ্তাহের মতো সময় লাগবে। সরকারি সিদ্ধান্ত মোতাবেক আগামী ২০ মে’র দিকে বাজারে পরিপক্ক লিচু পাওয়া যাবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘বাজারে বর্তমানে যেসব লিচু পাওয়া যাচ্ছে তা দেশি অপরিপক্ক লিচু। কেবল মুনাফার জন্যই চাষি ও বাগানমালিকরা অপরিপক্ব লিচু বাজারে তুলছেন।’

কুষ্টিয়া ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক কাজী রকিবুল হাসান বলেন, ‘এইসব লিচু বিক্রি বন্ধে অভিযান অব্যাহত আছে।’

Stay updated on the go with The Daily Star Android & iOS News App. Click here to download it for your device.

Grameenphone and Robi:
Type START <space> BR and send SMS it to 2222

Banglalink:
Type START <space> BR and send SMS it to 2225

পাঠকের মন্তব্য

Top