রিয়ালকে বিদায় করে কোয়ার্টার ফাইনালে ম্যান সিটি | The Daily Star Bangla
০২:৫২ পূর্বাহ্ন, আগস্ট ০৮, ২০২০ / সর্বশেষ সংশোধিত: ০৩:৪৪ পূর্বাহ্ন, আগস্ট ০৮, ২০২০

রিয়ালকে বিদায় করে কোয়ার্টার ফাইনালে ম্যান সিটি

স্পোর্টস ডেস্ক

রাফায়েল ভারানের ভুলে ম্যাচের শুরুতেই পিছিয়ে পড়ল রিয়াল মাদ্রিদ। প্রথমার্ধের মাঝামাঝি সময়ে তাদেরকে সমতায় ফেরালেন করিম বেনজেমা। কিন্তু শেষরক্ষা হলো না। ফ্রান্সের বিশ্বকাপজয়ী ডিফেন্ডার ভারানের আরেকটি ভুলে জয়সূচক গোল পেয়ে গেল ম্যানচেস্টার সিটি। জিনেদিন জিদানের দলকে বিদায় করে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে পা রাখল তারা।

শুক্রবার রাতে ইতিহাদ স্টেডিয়ামে শেষ ষোলোর দ্বিতীয় লেগে ২-১ ব্যবধানে জিতেছে সিটিজেনরা। ঘরের মাঠে ইংলিশ ক্লাবটির দুই গোলদাতা রহিম স্টার্লিং ও গ্যাব্রিয়েল জেসুস।

প্রথম লেগে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের রেকর্ড ১৩ বারের চ্যাম্পিয়ন রিয়ালকে তাদের মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে ২-১ গোলে হারিয়েছিল ম্যান সিটি। ফলে দুই লেগ মিলিয়ে ৪-২ গোলের অগ্রগামিতায় পরের পর্বে উঠেছে পেপ গার্দিওলার শিষ্যরা।

ম্যাচের নবম মিনিটে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা। ডি-বক্সের ভেতরে ভারানের কাছ থেকে বল কেড়ে নিয়ে জেসুস পাস দেন স্টার্লিংকে। সহজ সুযোগ হাতছাড়া করেননি ইংলিশ ফরোয়ার্ড।

২১তম মিনিটে বেনজেমার দূর থেকে নেওয়া শট কর্নারের বিনিময়ে রক্ষা করেন সিটি গোলরক্ষক এদারসন। তবে সাত মিনিট পর জাল আর অক্ষত রাখতে পারেননি তিনি। তাকে পরাস্ত করে স্প্যানিশ লা লিগার শিরোপাধারীদের সমতায় ফেরান বেনজেমাই। রদ্রিগোর ক্রসে মাথা ছুঁইয়ে বল জালে পাঠান ফরাসি স্ট্রাইকার।

৪২তম মিনিটে সিটির তরুণ মিডফিল্ডার ফিল ফোডেনের শট অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। তাতে সমতায় থেকে বিরতিতে যায় দুই দল।

দ্বিতীয়ার্ধে রিয়ালকে চেপে ধরে আক্রমণের বন্যা বইয়ে দেয় ম্যান সিটি। শুরুতেই ফের এগিয়ে যেতে পারত তারা। তবে ৪৮তম মিনিটে কেভিন ডি ব্রুইনের রক্ষণচেরা পাস থেকে বল পেলেও থিবো কোর্তোয়াকে ফাঁকি দিতে পারেননি স্টার্লিং।

কিছুক্ষণ পর আরেকটি প্রচেষ্টা নস্যাৎ করে দেন বেলজিয়ান গোলরক্ষক। স্বদেশি ডি ব্রুইনের কর্নার থেকে গোলমুখে নেওয়া সরাসরি শট ফিরিয়ে দেন তিনি।

৬৫তম মিনিটে বেনজেমার শট সহজেই লুফে নেন এদারসন। পরের মিনিটে অপর প্রান্তে রিয়ালকে রক্ষা করেন কোর্তোয়া। ব্রাজিলিয়ান স্ট্রাইকার জেসুসের জোরালো শটে হাত ছুঁইয়ে ক্রসবারের উপর দিয়ে মাঠের বাইরে পাঠিয়ে দেন তিনি।

দুই মিনিট পর সিটিকে আবারও গোল উপহার দেন ভারান। মাঝমাঠ থেকে উড়ে আসা বলে প্রথমে হেড করতে পারেননি তিনি। বিপদমুক্ত করতে ব্যর্থ হয়ে দ্বিতীয় প্রচেষ্টায় তিনি বল বাড়িয়েছিলেন কোর্তোয়াকে। কিন্তু তার দুর্বল হেড রিয়াল গোলরক্ষকের কাছে পৌঁছানোর আগেই আলতো টোকায় নিশানা ভেদ করেন জেুসস।

পরবর্তী সময়ে ম্যাচে ফেরার চেষ্টা করেও গোলের দেখা পায়নি রিয়াল। সিটিও বেশ কয়েকটি সুযোগ পেলেও পারেনি ব্যবধান বাড়াতে।

রাতের আরেক ম্যাচে আলিয়াঞ্জ স্টেডিয়ামে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর জোড়া লক্ষ্যভেদে অলিম্পিক লিঁওকে ২-১ ব্যবধানে হারিয়েছে জুভেন্টাস। তবে ঘরের মাঠে জিতেও অ্যাওয়ে গোলের হিসাবে বাদ পড়েছে ইতালিয়ান সিরি আর বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।

আগের লেগে ফরাসি ক্লাব লিঁওর মাঠে জুভরা হেরেছিল ১-০ গোলে। ফলে দুই লেগ মিলিয়ে স্কোরলাইন দাঁড়ায় ২-২। কিন্তু দুই দলের মধ্যে পার্থক্য গড়ে দেয় রেফারির বিতর্কিত সিদ্ধান্তে পাওয়া পেনাল্টিতে মেমফিস ডিপাইয়ের গোল।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের প্রথম কোয়ার্টার ফাইনালে আগামী ১৬ অগাস্ট ম্যান সিটির মুখোমুখি হবে লিঁও। ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে পর্তুগালের রাজধানী লিসবনের হোসে আলভালাদে স্টেডিয়ামে।

Stay updated on the go with The Daily Star Android & iOS News App. Click here to download it for your device.

Grameenphone and Robi:
Type START <space> BR and send SMS it to 2222

Banglalink:
Type START <space> BR and send SMS it to 2225

পাঠকের মন্তব্য

Top