ম্যাক্সওয়েলের দাম উল্টো বাড়ায় ওয়ার্নারের রসিকতা | The Daily Star Bangla
০২:০২ অপরাহ্ন, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২১ / সর্বশেষ সংশোধিত: ০২:০৭ অপরাহ্ন, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২১

ম্যাক্সওয়েলের দাম উল্টো বাড়ায় ওয়ার্নারের রসিকতা

স্পোর্টস ডেস্ক

গত মৌসুমের আইপিএলে গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের পারফরম্যান্স ছিল ভীষণ বাজে। ব্যাট হাতে কিছুই করে দেখাতে পারেননি আগ্রাসী ইনিংস খেলার জন্য খ্যাত এই তারকা। বল হাতে অফ স্পিনেও পুষিয়ে দেওয়া সম্ভব হয়নি তার পক্ষে। তারপরও অস্ট্রেলিয়ার এই অলরাউন্ডারকে পাওয়ার চাহিদায় ভাটা পড়েনি। আইপিএলের এবারের নিলামে আরও চড়া দামে তাকে দলে টেনেছে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু। এ নিয়ে ঠাট্টার ছলে জাতীয় দলের সতীর্থকে খোঁচা মেরেছেন ডেভিড ওয়ার্নার।

বরাবরের মতো আইপিএলের ২০২০ সালের নিলামেও ম্যাক্সওয়েলকে নিয়ে হয়েছিল হাড্ডাহাড্ডি লড়াই। ১০ কোটি ৭৫ লাখ রুপিতে তার ঠিকানা হয়েছিল কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব (বর্তমানে পাঞ্জাব কিংস)। কিন্তু ওই আসরটি তার আইপিএল ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বাজে ছিল বললে দ্বিমত করার সুযোগ নেই! ১৩ ম্যাচে মাত্র ১৫.৪২ গড়ে ১০৬ রান এসেছিল ম্যাক্সির ব্যাট থেকে। স্ট্রাইক রেটের দশা ছিল আরও বিবর্ণ, মোটে ১০১.৮৮! গোটা আসরে তিনি চার মেরেছিলেন কেবল ৯টি, ছক্কা ছিল না একটাও!

অবধারিতভাবেই ম্যাক্সওয়েলকে ধরে রাখার চিন্তা আসেনি পাঞ্জাবের। তাই নতুন দলের খোঁজে নিলামে ওঠে তার নাম। সেখানে রীতিমতো কাড়াকাড়ি পড়ে যায় তাকে নিয়ে। বিস্ময়ের জন্ম দিয়ে ১৪ কোটি ২৫ লাখ রুপিতে তাকে কিনে নেয় বেঙ্গালুরু। আগের মৌসুমে পুরোপুরি ব্যর্থ হওয়া এক ব্যাটসম্যানের দাম না কমে উল্টো আরও সাড়ে তিন কোটি রুপি বেড়ে গেলে চোখ কপালে না উঠে উপায় কি!

পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে বর্তমানে নিউজিল্যান্ডে অবস্থান করছে অস্ট্রেলিয়া। ইতোমধ্যে গড়িয়েছে প্রথম টি-টোয়েন্টি। সোমবার তাতে ৫৩ রানের অনায়াস জয় পেয়েছে স্বাগতিক কিউইরা। দলের সংকটে ত্রাতা হতে পারেননি ম্যাক্সওয়েল। হাত ঘুরিয়ে ১ ওভারে ৯ রান দেওয়ার পর অজিদের আরও বিপদে ফেলে তিনি আউট হন ৫ বলে ১ রান করে।

ম্যাচে ফক্স ক্রিকেটের হয়ে ধারাভাষ্য দিয়েছেন বাঁহাতি ওপেনার ওয়ার্নার। কারণ, কুঁচকির চোটে ভোগা এই তারকাকে বিশ্রামে রেখেছে অস্ট্রেলিয়া। মাইক্রোফোন হাতে খেলার ধারাবিবরণী দেওয়ার এক পর্যায়ে বোলিংরত ম্যাক্সওয়েলকে দেখে তিনি বলে ওঠেন, ‘আইপিএলের নিলামে “বিগ শো”র (ম্যাক্সওয়েল) সময়টা খারাপ যায়নি।’ তখন পাশে থাকা সাবেক অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার মার্ক ওয়াহ স্মরণ করিয়ে দেন, ‘বিশেষ করে, গত আইপিএলটা তার যেমন কেটেছে, সেই বিবেচনায়।’

এরপরই ম্যাক্সওয়েলের পারিশ্রমিক নিয়ে রসিকতায় মাতেন ওয়ার্নার, ‘এটা বিস্ময়কর। কাউকে তার ফ্র্যাঞ্চাইজি থেকে ছেড়ে দেওয়া হলো (বাজে পারফরম্যান্সের কারণে) এবং ছেড়ে দেওয়ার পর সে আগের চেয়ে আরও বেশি আয় করছে!’ তবে দীর্ঘদিনের সতীর্থের জ্বলুনি হতে পারে ভেবেই কিনা আবার তিনি ক্ষতে দেন প্রলেপ, ‘‘আমরা তার ক্ষমতা সম্পর্কে জানি। আমি নিশ্চিত যে, ওর কাছে চাহিদা একটু বেশিই। কিন্তু আমি এটাও নিশ্চিত, সে (বিশাল মূল্যের) প্রতিদান দেবে।’

আইপিএলে এখন পর্যন্ত মোট আটটি আসরে খেলেছেন ম্যাক্সওয়েল। তবে নিজের সেরাটা তিনি দিতে পেরেছেন কেবল দুটি আসরে। ২০১৪ সালে ৩৪.৫০ গড়ে ও ১৮৭.৭৫ স্ট্রাইক রেটে ৫৫২ রান করেছিলেন তিনি। এরপর ২০১৭ সালে তার ব্যাট থেকে এসেছিল ৩১০ রান। সেবার তার গড় ছিল ৩১ ও স্ট্রাইক রেট ছিল ১৭৩.১৮। বাকিগুলোর কোনোটিতেই তার গড় ছোঁয়নি ২০।

Stay updated on the go with The Daily Star Android & iOS News App. Click here to download it for your device.

Grameenphone and Robi:
Type START <space> BR and send SMS it to 2222

Banglalink:
Type START <space> BR and send SMS it to 2225

পাঠকের মন্তব্য

Top