দেউলিয়া হওয়ার শঙ্কায় বার্সেলোনা! | The Daily Star Bangla
০৭:২৯ অপরাহ্ন, অক্টোবর ৩১, ২০২০ / সর্বশেষ সংশোধিত: ০৭:৪০ অপরাহ্ন, অক্টোবর ৩১, ২০২০

দেউলিয়া হওয়ার শঙ্কায় বার্সেলোনা!

স্পোর্টস ডেস্ক

করোনাভাইরাসের কারণে আর্থিকভাবে ভীষণ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে স্পেনের অন্যতম সেরা ক্লাব বার্সেলোনা। তাদের দশা কল্পনাতীত করুণ। ঘাটতি পোষাতে আগামী সপ্তাহের মধ্যে খেলোয়াড়দের বেতন ব্যাপক আকারে কমাতে হবে তাদেরকে। নইলে আগামী জানুয়ারিতে দেউলিয়া হয়ে যেতে পারে দলটি!

শনিবার স্প্যানিশ গণমাধ্যম মার্কা জানিয়েছে, আর্থিক অস্বচ্ছলতা এড়ানোর প্রথম ধাপ হিসেবে আগের দিন অনুষ্ঠিত হয়েছে একটি বৈঠক। সেখানে উপস্থিত ছিলেন বার্সেলোনার আইনজীবী এবং মূল দল ও ‘বি’ দলের ফুটবলাররা। কিন্তু আলোচনা ফলপ্রসূ হয়নি, আসেনি সমঝোতার বার্তা। ক্লাব কর্তৃপক্ষের বেতন কমানোর প্রস্তাবে সায় দেননি লিওনেল মেসিরা।

দেউলিয়া হওয়ার শঙ্কা দূর করতে আগামী বৃহস্পতিবারের মধ্যে খেলোয়াড়দের বেতন কম নিতে রাজি করাতে হবে বার্সাকে। সবমিলিয়ে ১৯০ মিলিয়ন (১৯ কোটি) ইউরো বাঁচাতে হবে কাতালানদের। এই লক্ষ্য অর্জনে ক্লাবটির সব খেলোয়াড়কে বেতনের ন্যূনতম ৩০ শতাংশ কমাতে হবে।

সাবেক সভাপতি জোসেপ মারিয়া বার্তোমেউয়ের বিদায়ের পর বার্সেলোনার পরিচালনা পরিষদের প্রধানের দায়িত্ব পেয়েছেন কার্লোস তুতকেতস। গত সপ্তাহে দায়িত্ব নেওয়ার পরপরই দলের বেহাল আর্থিক অবস্থা নিয়ে তিনি মুখ খুলেছিলেন, ‘আমাদের মূল চিন্তার বিষয় হলো অর্থনৈতিক। এই বৈশ্বিক মহামারি বার্সেলোনার উপর ব্যাপকভাবে আঘাত হেনেছে।’

তিনি যোগ করেছিলেন, ‘আমাদের ক্লাব উপার্জনের জন্য পর্যটনের ওপর নির্ভরশীল। এখন সেখান থেকে কোনো আয় নেই। যে সকল সমস্যা আমাদের উপর প্রভাব ফেলছে, সেগুলো থেকে উত্তরণের জন্য আগের বোর্ডের প্রস্তাবগুলো আমাদের গ্রহণ করতে হতে পারে।’

তা কী পরিকল্পনা ছিল বার্তোমেউয়ের নেতৃত্বাধীন আগের বোর্ডের? আর্থিক সংকট নিরসনে খেলোয়াড়দের বেতন স্থগিতের প্রস্তাব দিয়েছিল তারা। কিন্তু করোনাভাইরসের কারণে আগেই ৭০ শতাংশ বেতন কম নেওয়া খেলোয়াড়দের প্রায় সবাই তাতে আপত্তি জানিয়েছিলেন।

ব্যতিক্রম ছিলেন জেরার্দ পিকে, ক্লেমোঁ লংলে, মার্ক-আন্দ্রে টের স্টেগেন, ফ্রেঙ্কি ডি ইয়ংসহ অল্প কয়েকজন। মেসিদের সঙ্গে দ্বিমত পোষণ করে উল্টো পথে হাঁটার সুফলও পান তারা। বার্তোমেউয়ের দেওয়া প্রস্তাব মেনে নেওয়ায় একইসঙ্গে একই দিনে এই চার তারকার চুক্তি নবায়ন করেছিল বার্সা।

উল্লেখ্য, আর্থিক বিষয় নিয়ে বার্সার কপালে রয়েছে চিন্তার আরও একটি বড় ভাঁজ। সেটা আর্জেন্টাইন তারকা মেসিকে নিয়ে। বর্তমান চুক্তি অনুসারে, তিনি যদি ন্যু ক্যাম্পে চুক্তির মেয়াদ শেষ করেন, তবে তাকে বোনাস হিসেবে বড় অঙ্কের অর্থ পরিশোধ করতে হবে। মেসির বহুল আলোচিত চুক্তি শেষ হচ্ছে আগামী বছরের জুনে।

Stay updated on the go with The Daily Star Android & iOS News App. Click here to download it for your device.

Grameenphone and Robi:
Type START <space> BR and send SMS it to 2222

Banglalink:
Type START <space> BR and send SMS it to 2225

পাঠকের মন্তব্য

Top