চেলসি খেলোয়াড়দের সঙ্গে হ্যাজার্ডের হাসি-তামাশা, ক্ষুব্ধ রিয়াল ভক্তরা | The Daily Star Bangla
০৬:৪৭ অপরাহ্ন, মে ০৬, ২০২১ / সর্বশেষ সংশোধিত: ০৭:০৮ অপরাহ্ন, মে ০৬, ২০২১

চেলসি খেলোয়াড়দের সঙ্গে হ্যাজার্ডের হাসি-তামাশা, ক্ষুব্ধ রিয়াল ভক্তরা

স্পোর্টস ডেস্ক

ম্যাচের শেষ বাঁশি বাজার কয়েক মুহূর্ত পর টেলিভিশনের পর্দায় ফুটে ওঠে দৃশ্যটি। এডেন হ্যাজার্ড শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন তার সাবেক দল চেলসির দুই ফুটবলার কার্ট জুমা ও এদুয়ার্দো মেন্দিকে। শুধু তা-ই নয়, তাদের সঙ্গে হাসি-তামাশাও করতে দেখা যায় বেলজিয়ান এই ফরোয়ার্ডকে। উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে বিদায় নেওয়ার পর তার এমন কাণ্ডকারখানা ভালো লাগেনি রিয়াল মাদ্রিদের ভক্ত-সমর্থকদের।

বুধবার রাতে চেলসির মাঠ স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে সেমিফাইনালের দ্বিতীয় লেগে ২-০ গোলে হেরেছে রিয়াল। আগের লেগে তাদের মাঠে ১-১ ড্র করেছিল টমাস টুখেলের দল। ফলে দুই লেগ মিলিয়ে ৩-১ ব্যবধানে এগিয়ে থেকে ফাইনালে পা রেখেছে ইংলিশ ক্লাবটি। আর চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সফলতম ক্লাব রিয়াল গেছে প্রতিযোগিতা থেকে ছিটকে।

বাঁচা-মরার লড়াইয়ে জিনেদিন জিদানের শিষ্যরা ছিল রীতিমতো ছন্নছাড়া। দুর্বার চেলসিকে সামলানোর কোনো উপায় যেন জানা ছিল না তাদের! রক্ষণ জমাট রেখে পাল্টা আক্রমণ নির্ভর কৌশল বেছে নিয়ে পুরো ম্যাচে আধিপত্য দেখায় স্বাগতিকরা। বিশেষ করে, বিরতির পর স্প্যানিশ পরাশক্তি রিয়ালকে একেবারে চেপে ধরে ব্লুজরা। তারা একাধিক সুবর্ণ সুযোগ হাতছাড়া না করলে জিদান-হ্যাজার্ডদের বড় হারের স্বাদ নিতে হতো।

গোটা ম্যাচে বিবর্ণ ছিলেন চোট কাটিয়ে একাদশে ফেরা হ্যাজার্ড। ৫৩ বার বলে পা ছোঁয়াতে পারেন তিনি। সঠিক পাস দেন মাত্র ৩৩টি। মাত্র একটি শট তিনি রাখতে পারেন লক্ষ্যে। তার পারফরম্যান্স নিয়ে সমালোচনায় মুখর হয়েছে স্প্যানিশ গণমাধ্যম। মার্কা তাদের একটি প্রতিবেদনের শিরোনামে লিখেছে, হ্যাজার্ড সেমিতে খেলার উপযুক্ত ছিলেন না।

ম্যাচ পরবর্তী আচরণের জন্যও তোপের মুখে পড়েছেন হ্যাজার্ড। তার হাস্যোজ্জ্বল অবয়ব প্রসঙ্গে রিয়ালের সাবেক উইঙ্গার হাভিয়ের বালবোয়া সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে লিখেছেন, ‘কেউ আমাকে বিষয়টা বোঝান। কারণ, আমি এটা বুঝতে পারছি না।’

লিভারপুলের সাবেক খেলোয়াড় ডন হাচিনসন ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসিকে বলেছেন, ‘হ্যাজার্ড চেলসির জুমা ও মেন্দির সঙ্গে হাসি-তামাশা করছে। এটা নাকি চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনাল!’

টুইটারে এক সমর্থক লিখেছেন, ‘হ্যাজার্ড আসলে রিয়াল মাদ্রিদের তোয়াক্কা করে না।’ ক্ষুব্ধ আরেকজনের মন্তব্য, ‘দল হেরেছে, অথচ উৎসব চলছে!’

সাত মৌসুম চেলসিতে কাটিয়ে ২০১৯ সালে রিয়ালে যোগ দেন হ্যাজার্ড। লস ব্লাঙ্কোসদের জার্সিতে তার সেরাটা দেখা যায়নি বললেই চলে। গত মৌসুমের মতো এবারও তিনি চোটের কারণে মাঠের বাইরে ছিলেন লম্বা সময়। তবে ছন্দে না থাকলেও চেলসির বিপক্ষে একাদশে হ্যাজার্ডের অন্তর্ভুক্তির পক্ষে যুক্তি দিয়েছেন জিদান। চোট থেকে ফেরা ডিফেন্ডার সার্জিও রামোসকে খেলানো নিয়েও কোনো আক্ষেপ নেই রিয়ালের এই ফরাসি কোচের।

Stay updated on the go with The Daily Star Android & iOS News App. Click here to download it for your device.

Grameenphone and Robi:
Type START <space> BR and send SMS it to 2222

Banglalink:
Type START <space> BR and send SMS it to 2225

পাঠকের মন্তব্য

Top