আর কোনো পেসারের ৫০০ উইকেট পাওয়া নিয়ে ব্রডের সংশয় | The Daily Star Bangla
০২:২৬ অপরাহ্ন, জুলাই ২৯, ২০২০ / সর্বশেষ সংশোধিত: ০২:২৯ অপরাহ্ন, জুলাই ২৯, ২০২০

আর কোনো পেসারের ৫০০ উইকেট পাওয়া নিয়ে ব্রডের সংশয়

স্পোর্টস ডেস্ক

টেস্টে ৫০০ উইকেট নেওয়া বোলার এতদিন ছিলেন ছয়জন। তিন পেসার আর তিন স্পিনারের ভারসাম্য এই রেকর্ডে। মঙ্গলবার স্টুয়ার্ট ব্রড ৫০০ উইকেটের মাইলফলক স্পর্শ করে এই অভিজাত ক্লাবে পেসারদের প্রাধান্য বাড়িয়েছেন। তবে এই মাইলফলকে ভবিষ্যততে আর কোন পেসার যুক্ত হবেন কিনা, তা নিয়ে সংশয়ে খোদ ব্রড। 

মঙ্গলবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তৃতীয় টেস্টে ১০ উইকেট নেওয়ার পথে ব্রড স্পর্শ করেন ৫০০ উইকেটের ইতিহাস। টেস্টে মাত্র সপ্তম আর ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় বোলার হিসেবে এই উচ্চতায় উঠে প্রতিক্রিয়ায় আগামীর পেসারদের নিয়েও কথা বলেন তিনি। 

এমন অর্জন পেতে ১৪০ টেস্ট খেলতে হয়েছে ব্রডকে। সীমিত ওভারের ক্রিকেট কমিয়ে গত কয়েক বছর থেকেই টেস্টে বাড়তি নজর দিয়েছিলেন তিনি। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের রমরমা সময়ের জৌলুসেও গা ভাসাননি। 

ব্রডের পর ৫০০ উইকেট নিতে পারেন কোন পেসার, পরিসংখ্যানে সেই আভাস নেই। দক্ষিণ আফ্রিকার ডেল স্টেইন ৯৩ টেস্টে ৪৩৯ উইকেট নিয়ে টেস্ট থেকে অবসর নেন। 

বর্তমানে খেলছেন, বয়স ও পরিস্থিতি অনুকূলে এমন বোলারদের মধ্যে ৫০০ উইকেট নেওয়ার সম্ভাবনা আছে রবীচন্দ্র অশ্বিন (৩৬৫), ন্যাথান লায়ন (৩৯০) এই দুজনের। কিন্তু দুজনেই অফ স্পিনার। পেসারদের মধ্যে ৩২ পেরুনো ইশান্ত শর্মা ২৯৭ উইকেট নিয়ে অনেকটা পিছিয়ে , নিউজিল্যান্ডের টিম সাউদিও ২৮৪ উইকেট নিয়ে একই অবস্থায়। বয়স আর পরিস্থিতি এই দুজনের পক্ষে নয়। 

আর কোন পেসার ৫০০ উইকেট পাবেন কিনা, এই কারণেই সংশয় ব্রডের, ‘৫০০ উইকেট নিতে হলে অনেক অনেক টেস্ট ম্যাচ খেলতে হবে। হয়ত অনেক পেসার আসবে আগামীতে যাদের ওই পর্যন্ত যাওয়ার মাধা আছে। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে এত খেলার ধকল সামলে কেউ এত টেস্ট খেলতে পারবে কিনা ভাবার বিষয়। কারণ এখন টি-টোয়েন্টি ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্টগুলোর চাপ অনেক বেশি।’

‘এমনকি টেস্টের সংখ্যা কমানোর আলাপও আছে। আমি সৌভাগ্যবান ইংল্যান্ডের হয়ে এতগুলো টেস্ট খেলতে পেরেছি।’

৩৪ পেরুনো ব্রড এখনো পেসের ঝাঁজে দেখাচ্ছেন ঝলক। যেকোনো পেসারের পক্ষে বয়সটা বড় প্রশ্ন হলেও ব্রড নাকি এখনো অনেকদিন এভাবে খেলে যাওয়ার তাড়না পাচ্ছেন,  ‘সাবেক তারকারা বলেন কখন বিদায় নিতে হবে তারা বুঝছিলেন। আমি এখনো খেলে যাওয়ার তাড়না পাই। সপ্তাহ দুয়েক আগে (সাউদাম্পটন টেস্টে একাদশে জায়গা হারিয়ে) একটু ভাবনা হয়েছিল। কিন্তু সেটা সামলে এখন আমি দারুণভাবে ফিরেছি। আরো উদ্যম পাচ্ছি।’

‘যেকোনো সময়ের মতই ছন্দে বল করছি। গত বছর দেড়েকে কিছু টেকনিক্যাল কাজ করেছি, রান আপে বদল এসেছে। এখন স্টাম্প সোজা আক্রমণ করে ব্যাটসম্যানকে খেলতে বাধ্য করছি। এটা আমাকে রোমাঞ্চকর সাফল্য দিচ্ছে।’

টেস্টে ব্রড আর জেমস অ্যান্ডারসনের মিলিত উইকেট সংখ্যা ১০৯০। এক সঙ্গে খেলছেন কোন বোলিং জুটি টেস্টের ইতিহাসে এতগুলো উইকেট নিতে পারেনি। লম্বা সময় খেলে যাওয়া এই দুজন প্রেরণাও পান দুজনের কাছ থেকে,‘লম্বা সময় খেলে যেতে জিমি আমার আদর্শ। ৩৮ পেরিয়েছে। ওর কাছ থেকে দেখেছি, শিখেছি। দারুণ বন্ধু আমার। ও যেভাবে স্কিলে শান দিয়েছে, তা অসাধারণ।’

‘গত কয়েক বছরে দুজনে মিলে অনেক উইকেট নিয়েছি। গত দেড় বছরে আমরা আরও ভাল করছি।’

 

 

Stay updated on the go with The Daily Star Android & iOS News App. Click here to download it for your device.

Grameenphone and Robi:
Type START <space> BR and send SMS it to 2222

Banglalink:
Type START <space> BR and send SMS it to 2225

পাঠকের মন্তব্য

Top