অ্যাডিলেডের চিন্তায় বুঁদ হইনি: রাহানে | The Daily Star Bangla
১১:২০ পূর্বাহ্ন, ডিসেম্বর ২৯, ২০২০ / সর্বশেষ সংশোধিত: ১১:২৫ পূর্বাহ্ন, ডিসেম্বর ২৯, ২০২০

অ্যাডিলেডের চিন্তায় বুঁদ হইনি: রাহানে

স্পোর্টস ডেস্ক

৩৬ রানে অলআউট হওয়া একটা দল পরের টেস্টে জিতল ৮ উইকেটের বড় ব্যবধানে। তাও দলের সেরা খেলোয়াড়কে ছাড়াই। ভারতের এই ঘুরে দাঁড়ানোর পেছনে যার সবচেয়ে বড় অবদান, ভারপ্রাপ্ত অধিনায়কত্ব পাওয়া সেই আজিঙ্কা রাহানে জানালেন কোন ভাবনা নিয়ে মেলবোর্নে নেমেছিলেন তারা।

মঙ্গলবার চতুর্থ দিনে ভারত সেরেছে অনেকটা আনুষ্ঠানিকতা। অস্ট্রেলিয়াকে ৮ উইকেটে উড়িয়ে দারুণভাবে ফিরেছে সিরিজে।

দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেওয়ার পাশাপাশি ব্যাট হাতে রাহানে ছিলেন দলের সেরা (১১২ ও ২৭*)। তবে ম্যাচ জিততে একজন কেউ নয় অবদান ছিল বেশ কয়েকজনের। মানসিকভাবে বিপর্যস্ত একটা পরিস্থিতিতে থেকে সেই পারফরম্যান্স বের করা আনাটা ছিল ভীষণ চ্যালেঞ্জের। রাহানে জানালেন যে ভাবনা সবার মধ্যে ছড়িয়ে দিয়েছিলেন তারা,  ‘অ্যাডিলেডের কথা চিন্তা করলে সহজেই দমে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম তা করব না। নিবেদন আর দৃঢ় মনোভাব নিয়ে ফিরতে চেয়েছি। সম্মিলিত প্রচেষ্টাই আসল বার্তা। আমরা জানতাম যদি তা করতে পারি তাহলে ফল আমাদের পক্ষে আসবে।’

অস্ট্রেলিয়াকে প্রথম ইনিংসে ১৯৫ রানে থামিয়ে দেওয়ার পর ভারত করে ৩২৬ রান। বড় লিড নিয়ে দ্বিতীয় ইনিংসেও দাপট দেখায় ভারতের বোলাররা। স্বাগতিকরা ২০০ রান করলে রাহানেদের লক্ষ্য দাঁড়ায় কেবল ৭০। ভারপ্রাপ্ত ভারত অধিনায়ক জানালেন তাদের সব পরিকল্পনার প্রয়োগ ছিল শতভাগ, ‘আমরা চেয়েছিলাম আগে ব্যাট করতে। নিখুঁত লাইন-লেন্থে বল করা জরুরী ছিল। আমরা তা ভালোভাবে করেছি। বিশেষ করে (রবীচন্দ্রন) অশ্বিন  ছিল চিত্তাকর্ষক, ১০ ওভারের ভেতর বল করতে এসে চাপ তৈরি করা সত্যিই অসাধারণ।’

চোটে মোহাম্মদ শামি ছিটকে পড়ায় এই টেস্টে অভিষেক হয় পেসার মোহাম্মদ সিরাজের। পৃথ্বী শর জায়গায় নেমেছিলেন শুভমান গিল। এই তরুণই মন ভরিয়ে দিয়েছে অধিনায়কের। বিশেষ দ্বিতীয় ইনিংস উমেশ যাদব ৩.৩ ওভারের বেশি বল করতে না পারলেও সে অভাব টের পেতে দেননি সিরাজ। দুই ইনিংসে ৫ উইকেট নিয়ে রাখেন অবদান, প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেট খেলে পোক্ত হয়ে আসায় তাদের এমন নৈপুণ্য দেখানো সহজ হয়েছে বলে মনে করেন রাহানে,  ‘আমি মুগ্ধ দুজন অভিষিক্তের বেলাতেও (মোহাম্মদ সিরাজ ও শুভমান গিল) । প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেট আসলে এখানে ম্যাটার করছে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আসার আগে যদি কেউ যদি ৩-৪ বছর প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেট ও ভারত-এ দলে খেলে তাহলে এটা অনেক সাহায্য করে। যেভাবে সিরাজ বল করেছেন, যে শৃঙ্খলা আর মনোভাব দেখিয়েছে তা সত্যি দেখার মতো ছিল।’

Stay updated on the go with The Daily Star Android & iOS News App. Click here to download it for your device.

Grameenphone and Robi:
Type START <space> BR and send SMS it to 2222

Banglalink:
Type START <space> BR and send SMS it to 2225

পাঠকের মন্তব্য

Top