মুখ্যমন্ত্রী ঠিক করতে কংগ্রেসের বৈঠক, বিজেপির ভরাডুবি | The Daily Star Bangla
০৫:০৯ অপরাহ্ন, ডিসেম্বর ১১, ২০১৮ / সর্বশেষ সংশোধিত: ০৫:৩৮ অপরাহ্ন, ডিসেম্বর ১১, ২০১৮

মুখ্যমন্ত্রী ঠিক করতে কংগ্রেসের বৈঠক, বিজেপির ভরাডুবি

রাজস্থানের বসুন্ধরা রাজে সিন্ধিয়া ও ছত্তিশগড়ের রমন সিং বিজেপির এই দুই মুখ্যমন্ত্রীর চেয়ার বদল হচ্ছে। সেখানে ক্ষমতায় আসছে কংগ্রেস। তবে মধ্যপ্রদেশে মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহানের চেয়ারের পরিণতি এখনো নির্ধারিত নয়। আসন সংখ্যার দিক থেকে সেখানেও কংগ্রেসের চেয়ে পিছিয়ে রয়েছেন বিজেপি। তবে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পেলেও ম্যাজিক সংখ্যা থেকে মাত্র এক আসনে পিছিয়ে রয়েছে তারা।

ওদিকে মিজোরামে কংগ্রেসের লাল তানহোয়ারে চেয়ার বদল করতে হবে সেটা নিশ্চিত। যদিও তেলেঙ্গানার রাষ্ট্রীয় সমিতির চন্দ্রশেখর রাও থাকবেন নিজের জায়গাতে।

রাজস্থান, ছত্তিশগড়ের পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী হবেন কংগ্রেসের। দুই রাজ্যের কংগ্রেসের শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী জরুরি বৈঠকে মিলিত হবেন।

অন্যদিকে বিজেপির পরাজয় নিয়ে দলের অভ্যন্তরে নানা রকম কথা উঠছে। আজ এই পাঁচ রাজ্যের কোনোটিতেই বিজেপি সরকার গঠন করতে পারবে না বলেই মনে করা হচ্ছে। রাজ্যস্তরের নেতৃত্ব মনে করছেন, কেন্দ্রীয়ভাবে বিজেপির নীতির বিরুদ্ধে মানুষের এই রায়।

অন্যদিকে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব অবশ্য উল্টো কথা বলছে, তাদের অনেকেই নিজেদের মধ্যে বলাবলি করছেন যে, রাজস্থান, ছত্তিশগড়ে বিজেপি ধারাবাহিকভাবে সরকারে ছিল। তাই সেখানে সরকারবিরোধী একটা হাওয়া সক্রিয় হয়ে উঠেছিল। এটাকে স্বাভাবিক বলেই মনে করছেন বিজেপির শীর্ষ মহল।

যদিও সোমবার বিকেল পর্যন্ত সরকারিভাবে কোনো মন্তব্য করেননি বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ।

নির্বাচন কমিশন এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে ফলাফল ঘোষণা করেনি কিন্তু এর আগেই বেসরকারিভাবে বিকেল পর্যন্ত ভারতের পাঁচ রাজ্যের ভোটের ফল বলে দিচ্ছে মধ্যপ্রদেশও হাড্ডাহাড্ডি অবস্থান আছে বিজেপি ও কংগ্রেস।

মধ্যপ্রদেশ :

২৩০ আসনের মধ্যপ্রদেশের বিধানসভা গড়তে হলে বিজয়ী দল কিংবা জোট করে পেতে হবে ১১৬ আসন। আর সেই আসনের মধ্যে ইতিমধ্যেই কংগ্রেস পেয়ে গেছে ১১৫ আসন। বিজেপি ১০৪ আসন। রাজ্যটিতে বিজেপি সরকার ক্ষমতায় রয়েছে।

রাজস্থান :

রাজস্থানের দৃশ্যপটটা গত এক দশক ধরে একই দেখা যাচ্ছিল। বসুন্ধরা রাজে সিন্ধিয়া যাকে ‘রানীমাতা’ বলেই চেনেন সবাই। সেই বিজেপি নেত্রী ক্ষমতা হারাচ্ছেন। সেখানে কংগ্রেস ক্ষমতায় বসতে চলেছে। ২০০ আসনের রাজ্যে ম্যাজিক আসন সংখ্যা ১০১। সেই ম্যাজিক সংখ্যা অতিক্রম করে কংগ্রেসের ১০৪ আসনের এগিয়ে রয়েছে। বিজেপি পেয়েছে মাত্র ৭০ আসন। সেখানে সচিন পাইলনের নেতৃত্বে কংগ্রেস রাজ্য সরকার গঠন করবে বলে জল্পনা শুরু হয়েছে।

মিজোরাম :

মিজোরামে গত দুবারের সরকারে ছিল কংগ্রেস। ১০ বছর পর সেখানে পালাবদল হচ্ছে। বিকাল পর্যন্ত যা খবর তাতে ৪০ আসনের বিধানসভার বিরোধী মিজোরাম ন্যাশনাল ফ্রন্ট এমএনএফ এগিয়ে ২৬ আসনে, কংগ্রেস মাত্র ৫ আসনের নিজেদের জয় ধরে রাখতে পেরেছে। অন্য রাজনৈতিক দল পেয়েছে ৮ টি। সরকার গঠন করতে প্রয়োজন ২১ টি আসন।

ছত্তিশগড় :

ছত্তিশগরে পরপর তিন বার ক্ষমতায় ছিল বিজেপি। ৯০ আসনের বিধানসভায় সেখানে কংগ্রেস পেয়েছে ৬২ আসন। পক্ষান্তরে বিজেপির ঝুলিতে গিয়েছে মাত্র ১৮ আসন। সেখানে বিএসপি-জেসিস জোট পেয়েছে ৯ আসন। সরকার গঠন করতে প্রয়োজন হবে ৪৬ আসন। কংগ্রেস অবশ্য ম্যাজিকর সংখ্যা অনেক বেশি আসনে এগিয়ে আছে।

তেলেঙ্গানা :

তেলেঙ্গানা রাষ্ট্রীয় সমিতি শাসক দল রাজ্যটির। ১১৯ আসনের বিধানসভায় শাসক দল টিআরএস এগিয়ে ৮৭ আসনে। কংগ্রেস এবং টিডিএস ২২, বিজেপি ১ এবং অন্যরা ৯ আসন পেয়েছে। সরকার গঠন করতে ম্যাজিক সংখ্যা ৬০। ক্ষমতাসীন দল টিআরএস ম্যাজিক সংখ্যার বেশি আসনে এগিয়ে রয়েছে।

Stay updated on the go with The Daily Star Android & iOS News App. Click here to download it for your device.

Grameenphone and Robi:
Type START <space> BR and send SMS it to 2222

Banglalink:
Type START <space> BR and send SMS it to 2225

পাঠকের মন্তব্য

Top